সদ্য পাওয়া
Desh TV Logo জাতীয়:র‌্যাবকে রাজনৈতিকভাবে ব্যবহার বন্ধ ও আইন করে শৃঙ্খলায় আনার পরামর্শ বিশ্লেষকদের: বললেন, সরকার চাইলে বিলুপ্তও করতে পারে Desh TV Logo সম্পাদকদের অজ্ঞাতেই পাঠ্যবই পরিবর্তন করা হয়েছে, দাবি সংশ্লিষ্টদের: অবস্থান ব্যাখ্যা করে শিগগিরই বিবৃতি দেবেন তারা Desh TV Logo রাজধানীর সাত এলাকায় ঝুঁকিপূর্ণ ১২টি মার্কেট ও ১৪১টি আবাসিক ভবন: ধসে পড়ার আশঙ্কা থাকলেও আমলে নিচ্ছেন না ব্যবসায়ীরা Desh TV Logo সাহস থাকলে রাজপথে নামুন, আওয়ামী লীগ/ সরকারের দমন নীতি আর পুলিশের বৈরী আচরণের কারনেই বিএনপি রাজপথে নামতে পারে না- অভিযোগ নেতাদের Desh TV Logo জেলা পরিষদ নির্বাচনে গণতন্ত্র চর্চা হয়নি, ব্যাপক আচরণবিধি লঙ্ঘন ঘটেছে, সুজনের পর্যালোচনা, শক্তিশালী নির্বাচন কমিশন গঠনের তাগিদ Desh TV Logo গত বছর দেশে সাড়ে ৩ হাজারের বেশি শিশু সহিংসতা-নির্যাতনের শিকার, বাবা-মার হাতে বেড়েছে শিশু হত্যার হার, শিশু অধিকার ফোরামের প্রতিবেদন Desh TV Logo নালিশ না করে সাহস থাকলে রাজপথে নামুন, বিএনপির প্রতি ওবায়দুল কাদের Desh TV Logo সাবেক প্রধান বিচারপতি এম এম রুহুল আমিন মারা গেছেন Desh TV Logo সাতক্ষীরা জেলা ছাত্রলীগের যুগ্মসম্পাদক হাসিবুল ইসলাম ইমনের মৃতদেহ উদ্ধার, আটক ২ Desh TV Logo নড়াইলের কালিয়া উপজেলার কদমতলী গ্রামে গৃহবধূকে কুপিয়ে হত্যা, স্বামী পলাতক Desh TV Logo গাজীপুরের শ্রীপুর ও সাভারের সালেহপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় ৩ জনের মৃত্যু Desh TV Logo আন্তর্জাতিক: বর্ষবরণের দিন তুরস্কের ইস্তাম্বুলে নাইটক্লাবে হামলার ঘটনায় প্রধান সন্দেহভাজন আবদুলকাদির মাশারিপভ আটক Desh TV Logo খেলা: ক্রিকেট: আগামীকাল সকালে কক্সবাজারে সিরিজের চতুর্থ ওয়ানডেতে দক্ষিণ আফ্রিকার মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল Desh TV Logo ইনজুরি সমস্যায় ভুগছে বাংলাদেশ, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টে নাও খেলতে পারেন টাইগার ক্যাপ্টেন মুশফিকুর রহিম Desh TV Logo ফুটবল: ইতালিয়ান সিরি আ: তুরিনো ২-২ এসি মিলান, স্প্যানিশ লিগ: মালাগা ০-২ রিয়াল সোসিয়েদাদ Desh TV Logo পারিবারিক কারণে কোচিং ক্যারিয়ারের ইতি টানতে যাচ্ছেন লুই ফন হাল Desh TV Logo দেশ টিভির সংবাদ দেখুন সকাল সাড়ে ৭টা, ১০টা, বেলা ১২টা, দুপুর ২টা, বিকেল ৪টা, সন্ধ্যা ৭টা, রাত ৯টা, ১১টা এবং ১টায়

ঘটনাবহুল ওয়ান ইলেভেন আজ

বুধবার, ১১ জানুয়ারী, ২০১৭ (১৮:২৪)
ঘটনাবহুল-ওয়ান-ইলেভেন-আজ

তত্ত্বাবধায়ক সরকার

ঘটনাবহুল ওয়ান ইলেভেন আজ (বুধবার)— দশ বছর আগে এমন দিনেই জরুরি অবস্থা ঘোষণার মধ্য দিয়ে দেশের শাসনভার নিয়েছিল সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকার। রাজনৈতিক দলগুলোর হানাহানি আর মতানৈক্যের জেরে ক্ষমতায় আসা ওই সরকার পাল্টে দিয়েছিল দেশের রাজনৈতিক ইতিহাসের গতি প্রকৃতি।

তবে সেই ওয়ান ইলেভেনের দশ বছর পরও রাজনীতিকরা মতৈক্য আর একাত্মবোধের রাজনীতির শিক্ষা নেননি-এমনটাই মত বিশ্লেষকদের? আর ঘটনার দশ বছর পর এসে তাদের করণীয়ই বা কী?

ঘটনা দশ বছর আগে ২০০৭ সালের ১১ জানুয়ারি— জাতীয় নির্বাচন নিয়ে রাজনৈতিক দলগুলোর মতানৈক্যের প্রেক্ষাপটে আসে জরুরি অবস্থা আর সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক শাসন। চ্যালেঞ্জের মুখে পড়ে গোটা রাজনৈতিক ব্যবস্থাই।

গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রব্যবস্থায় একটি রাজনৈতিক সরকারের মেয়াদ শেষে যে নির্বাচনের মধ্য দিয়ে ক্ষমতার পালাবদল, সেই স্বতঃসিদ্ধ বিধানটাই ভুলুণ্ঠিত হয়েছিল ২০০৭-০৮ সালের এক-এগারোয়। দুই শীর্ষ রাজনৈতিক নেত্রীকে টার্গেট করে এজেন্ডা ছিল মাইনাস টু ফর্মূলা। জেলে যেতে হয় শেখ হাসিনা, খালেদা জিয়াসহ দেড় শতাধিক রাজনীতিককে।

তবে যে মতানৈক্যের জেরে আসে ওয়ান ইলেভেন তা থেকে কী শিক্ষা নিয়েছেন রাজনীতিবিদরা? সহনশীলতা কী ফিরেছে রাজনীতিতে?

বিশ্লেষকরা রাজনৈতিক সহনশীলতার ওপর জোর দিলেও রাজনীতিকরা বিষয়টিকে দেখছেন ভিন্নভাবে। ওয়ান ইলেভেন আর ফিরবে না; আইন করে সে প্রেক্ষাপট বন্ধের বিষয়টিকে সামনে আনছেন তারা।

পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধের রাজনীতি আর সহনশীলতাকে রাজনীতিকরা কৌশলে এড়িয়ে যেতে চাইলেও; বিশ্লেষকদের মতে, জাতীয় স্বার্থে ঐক্যে পৌঁছতে হবে রাজনৈতিক দলগুলোকে। করতে হবে সুষ্ঠু গণতান্ত্রের চর্চা।

এর বিপরীতে আবারও উত্থান হতে পারে ওয়ান ইলেভেন কিংবা তার চেয়েও ক্ষতিকর কিছু আর এক্ষেত্রে রাজনীতিবিদদের আরও দায়িত্বশীল ভূমিকা প্রত্যাশা করেন বিশ্লষকরা।

এই ক্যাটাগরীর আরও খবর

আরও খবর

পুরনো সংবাদ

শুক্র
শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
 
 
০১
০২
০৩
০৪
০৫
০৬
০৭
০৮
০৯
১০
১১
১২
১৩
১৪
১৫
১৬
১৭
১৮
১৯
২০
২১
২২
২৩
২৪
২৫
২৬
২৭
২৮
২৯
৩০
৩১